মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
সত্য প্রকাশে অপ্রতিরোধ্য দৈনিক সময়ের কণ্ঠ ডটকমে আপনাকে স্বাগতম  

ভোট চাইতে যেভাবে মানুষের কাছে গিয়েছিলাম দুঃসময় তাদের পাশে আছি ঃজর্জ (এমপি)

রামিম খান কুষ্টিয়া
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১, ৫:৪০ অপরাহ্ন

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির কথা প্রথম জানা যায় ৮ মার্চ ২০২০ সালে এবং প্রথম মৃত্যুটি ঘটে ১৮ই মার্চ, ২০২০ সালে। এরপরের দুই মাস দৈনিক শনাক্তের সংখ্যা ৩ অংকের মধ্যে ছিল যা বাড়তে বাড়তে সর্বোচ্চতে পৌঁচেছে।

করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগে প্রথম থেকেই এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসিত হয়েছেন কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক স্হায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ ।

করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকেই প্রতিদিনই নিজ সংসদীয় এলাকায় সংকটে পড়া মানুষের খোঁজখবর নিচ্ছেন তিনি। শুধু নিজে নন, দলের নেতাকর্মীদেরও এ কাজে নামিয়েছেন তিনি। দুর্যোগকালীন অবস্থায় তার এমন উদ্যোগের প্রশংসা করছে এলাকার মানুষ।

কুষ্টিয়ার (খোকসা-কুমাখালী) উপজেলা নিয়ে কুষ্টিয়া-৪ আসন। এই আসনে সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জ সরকারি ত্রাণ সহায়তার পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে করোনা সংক্রমণের কারণে সঙ্কটে পড়া মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করছেন তিনি।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর সাংসদ জর্জ নিজ এলাকার জনগণকে সচেতন করতে শুরু করেন। এসময় করণীয় নির্ধারণে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেন তিনি। লকডাউন ঘোষণার পর বিপাকে পড়া মানুষদের খাদ্য সহায়তা প্রদান শুরু করেন তিনি, যা অব্যাহত রয়েছে।

বর্তমানে কুষ্টিয়া জেলা সহ আশেপাশের জেলাগুলোতেও করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে তার নির্বাচিত এলাকায় (খোকসা-কুমারখালী) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অক্সিজেন সিলিন্ডার, অক্সিমিটার, অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিল এবং খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জন্য ৮৮,৮২০৭৩ লক্ষ টাকা এবং কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬৬৬৮৬১১ লক্ষ টাকা সরকারি ওষুধ বরাদ্দ। এবং প্রতিদিন দুইটি উপজেলায় প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সিলিন্ডার নিজস্ব অর্থায়নে রোগীদের সেবা করে যাচ্ছেন তিনি।

এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছি। যেভাবে ভোট চাইতে জনগণের দুয়ারে গিয়েছে সেভাবেই তাদের পাশে আছি।

তিনি বলেন, প্রশাসনের কর্মকর্তারা যদি মাঠে নেমে কাজ করতে পারেন, আমরা জনপ্রতিনিধিরা কেন পারবো না? শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এখন সকল জনপ্রতিনিধির মানুষের পাশে থাকা উচিত।‘

সরকারি সহায়তার পাশাপাশি নিজের পক্ষ থেকে অভাবী মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছেন বলে জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ.....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর