শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
আসছে মিডবাজেট ভিভো ওয়াই২১; সাথে ১০ লক্ষ টাকা পুরস্কার জাতিসঙ্ঘের সাধারণ অধিবেশনের উদ্বোধনী পর্বে প্রধানমন্ত্রী সিরাজগঞ্জে বিনামূল্যে কৃষকদের মাঝে মাসকলাইবীজ ও সার বিতরণ । নওগাঁ’র রাণীনগরে ১১ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ বিতরনঃ কুষ্টিয়ার সবজির বাজার গুলোতে আগুন,দাম পাচ্ছে না কৃষক পটুয়াখালীর গলাচিপায় জমি জাল-জালিয়াতি, বিজ্ঞ আদালতে মামলা তদন্ত পিবিআইতেে পটুয়াখালীর চর কাজলে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার লুট হাসপাতালে ভর্তী। কুষ্টিয়ায় এবার দেখা মিলল অন্যতম রাসেল ভাইপার সাপ শীর্ষ করদাতা হিসেবে সম্মাননা পেল বিএটি বাংলাদেশ তিন বারের চেয়ারম্যান পরিবার নিয়ে থাকেন জরাজীর্ণ টিনের ঘরে
ঘোষণা:
সত্য প্রকাশে অপ্রতিরোধ্য দৈনিক সময়ের কণ্ঠ ডটকমে আপনাকে স্বাগতম  

বেলকুচিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা চলাকালে দু’ গ্রুপের সংঘর্ষ !

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জ ঃঃ
আপডেট টাইম : শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০, ৬:০৬ অপরাহ্ন

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা চলাকালীন সময়ে আওয়ামীলীগের দু’গ্রুপের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে ।

শনিবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে উভয়পক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে । স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মন্ডলের সমর্থক সাবেক যুবলীগ নেতা সাজ্জাদুল হক রেজা গ্রুপের লোকজন এবং জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি-জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ বিশ্বাস ও তার সহধর্মিনী পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাসের সমর্থক আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালালে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন ।

পুলিশ-প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ১১টায় বেলকুচি উপজেলার চালা এলাকায় দলীয় কার্যালয়ে আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা শুরু হয়। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি-জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের সহধর্মিনী বেলকুচি পৌরসভার মেয়র উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আশানুর বিশ্বাস মিছিলসহ বর্ধিত সভায় অংশগ্রহনের জন্য দলীয় কার্যালয়ে সামনে আসেন এবং কার্যালয়ে ঢোকার আগেই পুলিশ বাঁধা দেয়। পরে পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাস একাই বর্ধিত সভায় অংশগ্রহনের জন্য কার্যালয়ে প্রবেশ ।

এসময় লতিফ বিশ্বাস ও তার সহধর্মিনীর সমর্থকরা রাস্তার উপর নানা শ্লোগান দিতে থাকে। তবে উপজেলা আওয়ামীলীগের কোন সদস্য না হলেও একই স্থানে পূর্বে থেকে সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মন্ডলের সমর্থক যুবলীগ নেতা সাজ্জাদুল হক রেজার বাহিনীর লোকজন অবস্থান নিয়ে সেখানে তারা যুবলীগ নেতা সাজ্জাদুল হক রেজার নামে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকে। একপর্যায়ে রেজার বাহিনী আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের সমর্থক আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এতে দু ‘পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপে উভয়পক্ষের অন্তত ১৫জন আহত হয়।

বেলকুচি পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাস জানান, বর্ধিত সভায় সাজ্জাদুলের অংশগ্রহনের সুযোগ না থাকলেও আমাদেরকে মারপিট ও লাঞ্চিত করার জন্য সংসদ সদস্যের পক্ষ নিয়ে সে এবং তার লোকজন দলীয় কার্যালয়ের আশপাশে ও ছাদের উপরে ঢিল ও লাঠিসোটা নিয়ে অবস্থান করছিলো। আমরা যখন মিছিলসহ ঢুকে পড়ে তখনই বিভিন্ন দিক রেজা রেজা বলে শ্লোগান দিয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায় এবং ঢিল ছুড়তে থাকে। এসময় দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। তিনি বলেন, আমি নিজেই ঢিলের আঘাত পেয়েছি। সংসদ সদস্যের মদদে রেজার বাহিনী পরিকল্পিত ভাবে মিছিলে হামলা চালিয়েছে এবং আওয়ামীলীগের সাধারণ নেতাকর্মীকে মারপিট করেছে। এতে তাদের ৮ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।

সাবেক যুবলীগ নেতা সাজ্জাদুল হক রেজা জানান, সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মন্ডলের সাথে গিয়ে আমাদের কিছু নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে সামনে ছিল। এসময় পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাসের সমর্থকরা মিছিল নিয়ে পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে কার্যালয়ে ঢোকার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে সেখানে আমাদের কয়েকজন নেতাকর্মীকে মারপিট করে। পরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। তাদের হামলায় আমাদের অন্তত ৭জন আহত হয়েছে।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শাহিনুর কবির জানান, বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় চলাকালীন পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাস ও যুবলীগ নেতা সাজ্জাদুল হক রেজার লোকজন মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে আসে। এক পর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। পরে পুলিশ ৬ রাউন্ড টিয়ারশেল ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনেন ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ.....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর